ড্রাই স্কিন? শীতে ফেস প্যাকে যে ৫টি জিনিস ব্যবহার করবেন না

ঘরোয়া জিনিস দিয়ে কম খরচে কি করে নিজেকে সুন্দর রাখা যায় সেটা আপনারা আমাদের প্রতিবেদন পড়ে জেনে গিয়েছেন।

মাথার চুল থেকে পায়ের নখ পর্যন্ত কি কি ব্যবহার করে আপনারা আপনাদের গ্ল্যামারাস রাখতে পারেন তা আপনাদের হাতের মুঠোয়। আজ আপনাদের জানাবো

এমন পাঁচটি ঘরোয়া জিনিস সম্বন্ধে যা এই শীতে ফেস প্যাকের মধ্যে ব্যবহার করা যাবে না। বিশেষ করে যাদের ড্রাই স্কিন তাঁদের জন্য এই জিনিসগুলি একদম না।

১. বেসন
বেসন স্কিন কেয়ারের জন্য একটি অনবদ্য আর চিরাচরিত জিনিস। শুধু বেসন যেমন আমরা ব্যবহার করি, তেমনই বেসনের সঙ্গে অন্য উপকরণ মিলিয়ে ফেস প্যাক, ফেস মাস্ক ব্যবহার করি।

কিন্তু এই শীতের সময়ে আমাদের বেসন ব্যবহার বন্ধ রাখতে হবে। বেসন আমরা যখন ব্যবহার করি তখন বেসন আমাদের স্কিন থেকে অতিরিক্ত তেল শুষে নেয়। তার ফলে আমাদের মুখ সারা বছর ভাল দেখায়, ঝকঝকে দেখায়।

শীতকালে স্কিন একটু তেল চায়। এই তেল বা তেলতেলে ভাব মুখের ময়েশ্চার ধরে রাখে সারা দিন। তাই বেসন শীতের সময়ে ব্যবহার করলে মুখ শুকিয়ে যেতে পারে, ময়েশ্চার কমে যেতে পারে। কিন্তু ময়েশ্চারাইজিং কোনও জিনিস, যেমন দুধ বা মিল্ক ক্রিম দিয়ে মেখে বেসন ব্যবহার করা যেতে পারে।

২. চালের গুঁড়ো
মুখে স্ক্রাব করতে এর ব্যবহার অনবদ্য। শীতকালে চালের গুঁড়ো ভাল পাওয়ায় যায়। কিন্তু এই শীতের সময়েই আপনাকে চালের গুঁড়ো ব্যবহার বন্ধ রাখতে হবে স্কিন কেয়ারের জন্য। চালের গুঁড়োর মধ্যে স্টার্চ আছে। এই স্টার্চ মুখ শুকিয়ে দেয় খুব বেশি করে।

আপনি যখন চালের গুঁড়ো মুখ থেকে তুলে নেবেন তখন মুখ খুব শুকনো লাগছে এটা বুঝতে পারবেন। আর এই শীতের সময়ে বেশি চালের গুঁড়ো ব্যবহার করলে ফাইন লাইনস, রিঙ্কেলস খুব বেশি পড়বে। আর ড্রাই স্কিনের তো এই সমস্যা খুব বেশিই।

৩. লেবু
আমরা সাধারণত পাতিলেবু নানা প্যাক তৈরি করতে ব্যবহার করি। কিন্তু লেবু যেহেতু অ্যাসিডিক, তাই এটি ড্রাই স্কিনে এই শীতকালে ব্যবহার ঠিক না। শীতে ড্রাই স্কিন এমনিতেই একটু বেশি ড্রাই হয়ে থাকে।

এই অতিরিক্ত ড্রাই হওয়া স্কিনে যদি লেবুর রস যায় তাহলে একটু র‍্যাশ বা লালচে হয়ে যাওয়ার প্রবণতা তৈরি হয়। একটা জ্বালা ভাব আসে খানিক পরেই। তাই কোনও ফেস প্যাকে লেবু এই সময়ে দেবেন না। তবে অলিভ তেল বা গ্লিসারিনের সঙ্গে মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

৪. শশা
শশার ফেস প্যাক
শুনে অবাক হচ্ছেন? শশার মধ্যে জলীয় ভাব এতো বেশি থাকা সত্ত্বেও কেন বারণ করছি শশা ব্যবহারে! আসলে শশার এই জলীয় রস স্কিনে যাওয়ার পর যখন শুকিয়ে যায় তখন স্কিন অতিরিক্ত ড্রাই হয়ে যায়।

আর ত্বকের সাধারণ তৈল ভাব কম করে আনে অনেকটা। এই তেল শীতের সময়ে খুব দরকার। চোখের চারদিকে কালচে ভাব কমাতে আমরা সাধারণত শশা ব্যবহার করি। এই সময়ে শশা ব্যবহার করলে চোখের চারপাশের স্কিন বেশি ড্রাই হতে পারে, ফুলেও যেতে পারে।

৫. আলু
আলু স্কিন টাইট করতে সাহায্য করে। এই শীতের সময়ে আলু যদি স্কিন আরও টাইট করে দেয় তাহলে ড্রাই স্কিন আরও ড্রাই হয়ে যাবে। বলিরেখা তৈরি হবে,

বলিরেখা থাকলে আরও বেড়ে যেতে পারে। সাদা সাদা খড়খড়ে দাগ উঠতে পারে আলু ব্যবহার করার পর। তাই শীতের সময়ে ড্রাই স্কিন যাদের তাঁরা আলু ব্যবহার বন্ধ রাখুন।

এই কয়েকটা মাত্র জিনিস যদি আপনি শীতের সময়ে বাদ রাখেন তাহলে কিন্তু খুব ভাল ভাবে ড্রাই স্কিনের যত্ন নেওয়া যেতে পারে। মধু, অয়েল এই সব অনায়াসে ব্যবহার করতে পারেন। ময়েশ্চারাইজিং জিনিস ব্যবহার করুন ফেস প্যাকের মধ্যে বেশি করে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*